১ ভাদ্র ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৬ আগস্ট ২০১৮, ৮:০৯ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

জীবনে ফেরার গল্প... ২৪


১৭ জুলাই ২০১৮ মঙ্গলবার, ১০:০৪  পিএম

মোহসীন-উল হাকিম

নতুনসময়.কম


জীবনে ফেরার গল্প... ২৪
রফিক, লেখক ও মল্লিক

পূনর্বাসনে সহযোগি তারাও, যারা নিজেরাও দস্যুতার শিকার। ছবিতে আমার ডান পাশের জন সাবেক দস্যু রফিক। আর ডান পাশে দুবলার চরের জেলে সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবুল মল্লিক। দু’জনেরই বাড়ি বাগেরহাটের রামপালে। রফিক ছিলেন জলদস্যু বড় ভাই বাহিনীর উপনেতা। বলতে গেলে, বড় ভাই বাহিনী পরিচালনা করতেন এই রফিক। বন্দুকযুদ্ধে নিহত শহীদুল বাহিনীর প্রধান শহীদুলের ছোট ভাই। দস্যুতার বয়স কম করে হলেও পনের বছর।

গেল বছর সুন্দরবনের জেলে-বাওয়ালীদের মাঝে আতংক ছড়িয়েছিল বড় ভাই বাহিনী। ভদ্রা নদী থেকে দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল কুখ্যাত এই দস্যু বাহিনীর দাপট। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর-জানুয়ারির দিকে নীল কমল এর দক্ষিণের বইন্দের খাল থেকে তারা অপহরণ করেছিল এই বাবুল মল্লিকের জেলেদের। একই এলাকার বাসিন্দা হওয়ায় কিছুটা ডিস্কাউন্ট পেয়েছিলেন বাবুল মল্লিক। তারপরও বড় অংকের মুক্তিপণ নিয়েছিল দস্যুরা। অথচ লোকালয়ে ফেরার পর দেখলাম দুই পক্ষই মিলেমিশে বসবাস করছে।

মে মাসের মাঝামাঝি সময়। যাচ্ছিলাম মংলার আমড়াতলায় সাবেক দস্যুনেতা ওহিদ মোল্লার বাড়িতে। পথে রামপালের শ্রীফলতলায় দেখা রফিকের সঙ্গে। গাড়ি থামিয়ে নামতেই কয়েক মিনিটের মধ্যে জড়ো হলো জাহাঙ্গীর বাহিনীর মারুফসহ আরও কয়েকজন আত্মসমর্পণ করা দস্যু। কিছুক্ষণের মধ্যে স্থানীয়রাও ভীড় জমালো। এদের অনেকের সঙ্গে পরিচয় ছিলআগে থেকেই। বেশীর ভাগই দুবলার চরের মাছ ব্যবসায়ী। তারা সবাই কমবেশী সুন্দরবনের দস্যুদের নির্যাতনের শিকার, কমবেশী সবাই কখনও না কখনো হয়েছে দস্যুতার শিকার।

সেই হিসাব করলে এই দস্যুদের প্রতি সীমাহীন ক্ষোভ থাকার কথা মাছ ব্যবসায়ী ও জেলেদের। ক্ষোভ নিশ্চয়ই আছে। তবে আত্মসমর্পনের মধ্য দিয়ে দস্যুতা নির্মূলের প্রক্রিয়া বেশ কার্যকর হওয়ায় তারা রাগ আর ক্ষোভ সংবরণ করছে। কারণ, তারাই ভাল জানে, সাবেক দস্যুদের এলাকায় থাকতে না দিলে তাদেরই বিপদ। হয়তো ফিরে যাবে আবারও সেই দস্যুতার ভয়ঙ্কর জীবনে। তাই আত্মসমর্পন করা দস্যুদের পুনর্বাসনে তারাই বড় সহযোগি হিসেবে কাজ করছে।

যে সমাজ তাদের এক সময় দস্যুতার পথে ঠেলে দিয়েছিলো, সেই সমাজই এখন তাদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে।

সুন্দরবন ঘেঁষা জনপদে ঘুরতে ঘুরতে আমি দেখি কুখ্যাত সব বনদস্যু- জলদস্যুদের সমাজে মিশে যাওয়ার দৃশ্য...।

লেখক: সাংবাদিক

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: