৮ কার্তিক ১৪২৪, সোমবার ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৫:৪৭ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

২৪ জুনের মধ্যেই প্রস্তুত হবে জাতীয় ঈদগাহ


১৯ জুন ২০১৭ সোমবার, ০৫:৫৭  পিএম

ইমদাদুল হাসান রাতুল

নতুনসময়.কম


২৪ জুনের মধ্যেই প্রস্তুত হবে জাতীয় ঈদগাহ

খারাপ আবহাওয়া, জলাবদ্ধতা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতের বিষয় বিবেচনায় রেখেই জাতীয় ঈদগাহ প্রস্তুতির কাজ এগিয়ে চলছে। মাঠ বৃষ্টি প্রতিরোধক ত্রিপল দিয়ে আচ্ছাদিত করা ও ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসানোর পাশাপাশি পাম্পিং মেশিনের ব্যাবস্থা রাখা হয়েছে। রাষ্ট্রপতিসহ প্রায় ৯০ হাজার মুসল্লির অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ঈদের প্রধান জামাত সুষ্ঠ ও নির্বিঘ্ন করতে ২৪ জুনের মধ্যেই সব কাজ শেষ করবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে সকাল সাড়ে ৮টায় হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত হবে। দুর্যোগপূর্ণ হলে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সকাল ৯টায় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। রাষ্ট্রপতি ছাড়াও মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, বিচারপতি ও বিদেশীরা কূটনৈতিকরা ঈদের এই প্রধান জামাতে অংশ নেবেন। জাতীয় ঈদগাহে ৮৪ হাজার মুসল্লি ও পাঁচ হাজার নারী ঈদের নামাজ পড়তে পারবেন।

এখন আষাড় মাস, বর্ষা মৌসুম। ঈদগাহে প্রধান জামাত সম্পন্ন করতে বৃষ্টিই বড় বাগড়া হয়ে দাঁড়াতে পারে। অল্প বৃষ্টিতে রাজধানীতে জলাবদ্ধতার সমস্যাও রয়েছে। এরসঙ্গে এত বিশাল জনসংখ্যার সার্বিক সুবিধা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতের বিষয় রয়েছে। আর এগুলো বিবেচনায় রেখেই অন্যান্যবারের মত এবারো ডিএসসিসি বেশ আগে থেকেই কাজ শুরু করেছে।

সোমবার সরেজমিনে দেখা যায়, প্রায় অর্ধেক মাঠের উপরে ত্রিপল আচ্ছাদনের কাজ শেষ হয়েছে। বাকি অংশেও লাগানোর কাজ চলছে। এছাড়া কয়েকটি স্থানে বাঁশ দিয়ে অবকাঠামো নির্মানের কাজও চলছে। গেট মেরামত ও মিনারে রং লাগানোর কাজ প্রায় শেষ।

ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিল্লাল নতুন সময়কে বলেন, প্রস্তুতি চলছে। ত্রিপল টানানো হচ্ছে। বৃষ্টির বিষয়টি আমরা মাথায় রেখেছি। কুরবানীর ঈদেও বৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু কোনো সমস্যা হয়নি। ফায়াস সার্ভিসের পাম্পিং মেশিন থাকবে। পানি যেন না জমে সে বিষয়টি ওয়াসা দেখবে।

ডিএসসিসির এই প্রধান নির্বাহী আরো বলেন, যদি কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয় তাহলে ঈদের প্রধান জামাত ৯টায় বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হবে। ঈদগাহে মুসল্লিদের অজু, মোবাইল টয়লেট ও প্রাথমিক চিকিৎসাসেবার ব্যাবস্থাও করা হয়েছে। ২৬ জুন ঈদের সম্ভাব্য দিন নির্ধারন করে ২৪ জুনের মধ্যেই সব কাজ শেষ হবে বলে জানান খান মোহাম্মদ বিল্লাল।

জাতীয় ঈদগাহের নিরাপত্তার বিষয়ে ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, মুসল্লিদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। এজন্য ঢাকা মহানগর পুলিশ এবং র‌্যাব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। সিসি ক্যামেরাসহ প্রয়োজনীয় সবকিছু রাখা হবে।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী জানিয়েছে, প্রতিবারের মতো এবারো ঈদগাহের নিরাপত্তায় থাকবে পুলিশের স্পেশাল উইপন অ্যান্ড ট্যাকটিক্স (সোয়াত) টিম। সিটি করপোরেশন ছাড়াও আলাদা ক্যামেরা ও কন্ট্রোল রুম স্থাপন করবে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। নিরাপত্তা দেবে র‌্যাবের বোম ডিস্পোজাল ইউনিট এবং ডগ স্কোয়াড। ঈদগাহের চারপাশে সাদা পোশাকের গোয়েন্দারা উপস্থিত থাকবে।

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছিলেন, দেশের প্রতিটি ঈদগাহ ময়দানে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। দেশের সব নাগরিক যাতে নিরাপদে ঈদের নামাজ আদায় করতে পারেন, সেজন্য প্রতিটি ঈদগাহ ময়দানে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে।

এদিকে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানের পাশাপাশি ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের প্রতিটি ওয়ার্ডে চারটি করে ঈদের জামাত হবে। ঢাকা দক্ষিণে জাতীয় ঈদগাহ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠসহ ২৩০টি ও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩৬টি ওয়ার্ডে ১৮০টিসহ মোট ৪১০ স্থানে ঈদ জামাত হবে।

ঈদের জামাতের জন্য সিটি করপোরেশনের মাঠ, স্কুলের মাঠ, মসজিদ, মাদ্রাসার মাঠ নির্ধারণ করা হয়েছে। এগুলোর কাজও ২৮ রোযার মধ্যে শেষ হবে বলে সিটি করপোরেশন সূত্র জানিয়েছে।

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: