৩০ শ্রাবণ ১৪২৫, বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮, ৩:০১ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

রাজধানীর বর্জ্য থেকে বায়োগ্যাস উৎপাদনের উদ্যোগ


০৩ আগস্ট ২০১৮ শুক্রবার, ০৯:১৫  এএম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

নতুনসময়.কম


রাজধানীর বর্জ্য থেকে বায়োগ্যাস উৎপাদনের উদ্যোগ

ঢাকার বর্জ্য থেকে এবার বায়োগ্যাস উৎপাদনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, যা ব্যবহার করা যাবে সিএনজিচালিত যেকোনও পরিবহনে, চলবে রান্নার কাজেও। জানা গেছে, এ প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ পেয়েছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান লৌহজং বায়োগ্যাস সিএনজি ফিলিং স্টেশন লিমিটেড । বায়োগ্যাস ছাড়াও এ প্রকল্পের মাধ্যমে মেডিক্যালে ব্যবহৃত গ্যাসসহ পাওয়া যাবে বিদ্যুৎ ও জৈব-সার।

ঢাকার বর্জ্য থেকে বায়োগ্যাস উৎপাদনের জন্য অনুমতি চেয়ে ২০১৭ সালের ২২ অক্টোবর ডিএসসিসি দফতরে আবেদন করে লৌহজং বায়োগ্যাস সিএনজি ফিলিং স্টেশন লিমিটেড।গত ২৫ জুলাই এক বোর্ড সভায় এ আবেদনে অনুমোদন দেয় ডিএসসিসি।

ডিএসসিসি সূত্র জানায়, তাদের সঙ্গে হওয়া চুক্তি অনুযায়ী মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার নওয়াপাড়া লৌহজং রোডে অবস্থিত লৌহজং বায়োগ্যাস সিএনজি ফিলিং স্টেশন লিমিটেড যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে দৈনিক ৬০ টন বর্জ্য সংগ্রহ করার অনুমোদন পেয়েছে। এই বর্জ্য থেকে প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি দৈনিক ৪৬৯৫.৬২ কিউবিক মিটার বিদ্যুৎ এবং ১৮৬৩০ কেজি জৈব-সার উৎপাদন করবে।
পাশাপাশি উৎপাদিত গ্যাস সিলিন্ডারজাত করে বাসাবাড়িতেও ব্যবহার করা যাবে।

কোম্পানির বিভিন্ন সূত্র জানায়, কোম্পানির নিজস্ব বিনিয়োগ ও বিদেশি প্রতিষ্ঠান ইনফ্রাস্ট্রাকচারাল ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি লিমিডেটের আর্থিক সহায়তায় ফিনল্যান্ডের বায়োজিট কোম্পানির যন্ত্রপাতির মাধ্যমে প্রায় ৪৫ কোটি টাকা ব্যয়ে এই প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে। সব ঠিক থাকলে প্রতিষ্ঠানটি চলতি বছরের শেষের দিকে উৎপাদনে যাবে।

সূত্র জানায়, গোবর থেকে উৎপাদিত বায়োগ্যাসের চেয়ে বর্জ্য থেকে উৎপাদিত বায়োগ্যাসের চাপ অনেক বেশি। প্রতিকেজি ২০ টাকা দামের প্রতিকেজি বায়োগ্যাসে একটি বাস প্রায় ৫ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে পারে।
এ ব্যাপারে লৌহজং বায়োগ্যাস সিএনজি ফিলিং স্টেশন লিমিটেডের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমার বিশ্বাস, প্রকল্পটি দেশের জন্য একটি অতীব প্রয়োজনীয় ও কল্যাণকর শিল্প প্রকল্প হিসেব আত্মপ্রকাশ করবে। অচিরেই এই প্রকল্পের অনুকরণে দেশে অনেক শিল্প প্রকল্প গড়ে উঠবে, যা নবায়নযোগ্য জ্বালানি উৎপাদনের ক্ষেত্রে বিপুল সম্ভাবনার দ্বার উন্মুক্ত করবে।’

ডিএনসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী আ.হ.ম আব্দুল্লাহ হারুন বলেন, ‘আমাদের বর্জ্য ব্যবহার করে গ্যাস ও সার উৎপাদন করার জন্য লৌহজং বায়োগ্যাস সিএনজি ফিলিং স্টেশন লিমিটেডের চেয়ারম্যানকে অনুমোদন দিয়েছি। বিষয়টি ইতিবাচক। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ডিএসসিসির এলাকায় যেমন বর্জ্যের স্তুপ কমবে, তেমনি গ্যাস ও সার উৎপাদিত হবে।’

 

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: