৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার ২১ আগস্ট ২০১৭, ৪:১৫ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

রংপুরে দুই শীর্ষ সন্ত্রাসীর ১৭ বছর কারাদণ্ড


১৯ জুন ২০১৭ সোমবার, ০১:৪৯  এএম

নতুনসময়.কম


রংপুরে দুই শীর্ষ সন্ত্রাসীর ১৭ বছর কারাদণ্ড

রংপুরের দুই শীর্ষ সন্ত্রাসী পলাশ ও মুন্নাকে অস্ত্র মামলায় ১৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রোববার দুপুরে রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান এ রায় দেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, হত্যাসহ ২১ মামলার আসামি শীর্ষ সন্ত্রাসী পলাশকে ২০১৪ সালের ৮ এপ্রিল একটি হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করার সময় সে স্বীকার করে তার শ্যালক অপর শীর্ষ সন্ত্রাসী মুন্নার নগরীর গুড়াতি পাড়া মহল্লার বাড়িতে অস্ত্র আছে। পলাশের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীর ওপর ভিত্তি করে রাতে তার শ্যালক মুন্নার বাসার নিয়ে গেলে পুলিশ ও এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে আসামি মুন্নার বাড়ির রান্না ঘরের তাকে রাখা পলিথিনে মোড়ানো দেশীয় একটি শার্টার গান ও দুই রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানার এসআই হারেছ শিকদার বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলা করেন। মামলায় ১০ সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেলা গ্রহণ শেষে আসামি পলাশ ও মুন্নাকে দোষী সাব্যস্ত করে ১৭ বছর সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

অপরদিকে একই আদালতে রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার চরচতুরা গ্রামে পীরমামুদের ছেলে জহুরুল হক ২০০৪ সালের ১৪ ফ্রেরুয়ারি একই গ্রামের কবি বেওয়া নামে এক বিধবা নারীর বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে অপহরণ করার চেষ্টা করলে কবি বেওয়ার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে আসামি জহুরুল পিস্তল ফেলে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় অস্ত্র আইনে কাউনিয়া থানার এসআই আতাউর রহমান বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলা করে।

মামলায় ৭ জনের সাক্ষ্য ও জেরা শেষে আদালত আসামি জহুরুলকে দোষী সাব্যস্ত করে ১০ বছর সশ্রম কারদাণ্ডের আদেশ দেন।

সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী আইনুন নাহার পাপড়ী। তিনি জানান, দুই অস্ত্র মামলাতে ৩ আসামিকে দোষী সাব্যস্ত করে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে আসামি পক্ষের আইনজীবী তোফাজ্জল হোসেন জানান, তারা ন্যায়বিচার পাননি। এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: