৩১ শ্রাবণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৬ আগস্ট ২০১৮, ৪:৫৬ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

মরিচের বাম্পার ফলনে পঞ্চগড়ে কৃষকের মুখে হাসি


২৯ মে ২০১৮ মঙ্গলবার, ১১:১১  এএম

পঞ্চগড় করেসপন্ডেন্ট

নতুনসময়.কম


মরিচের বাম্পার ফলনে পঞ্চগড়ে কৃষকের মুখে হাসি

পঞ্চগড় জেলার মাটি মরিচ চাষের জন্য খুবই উপযোগী। জেলার তেতুঁলিয়া, পঞ্চগড় সদর, বিশেষ করে আটোয়ারী ও বোদা উপজেলার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষিরা ধারদেনা করে মরিচ চাষে ঝুঁকে পড়েছেন। কারণ বিগত বছরগুলোতে মরিচ চাষ করে ভালো মুনাফা করেছে। চলতি বছরে মরিচের পচন রোগের কারণে ফলন কিছুটা বিপর্যয় হয়েছে।

মরিচ চাষিরা জানান, কৃষি বিভাগের সঠিক সহায়তা পেলে মরিচ চাষ করে আরো ভালো ফলন পাওয়া যেত। কৃষি বিভাগের লোকজন বিশেষ করে মাঠ পর্যায়ের কোনো কর্মকর্তাই মরিচের রোগ প্রতিরোধে কি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে এসব বিষয়ে কোনো পরামর্শ প্রদান করেনি।

মরিচ চাষি আব্দুল করিম বলেন, এ বছর তিনি ৩ বিঘা জমিতে মরিচের চাষ করেছেন। তার বিঘাপ্রতি জমিতে খরচ হয়েছে ২০ হাজার টাকা। আবহাওয়া ভালো থাকলে এবং মরিচ ঘরজাত করতে পারলে তিনি বিঘাপ্রতি ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকার মরিচ বিক্রি করতে পারবেন।

ধামোর ইউনিয়নের মরিচ চাষি আশরাফুল ইসলাম বলেন, এ বছর মরিচের পচন রোগে তার প্রায় আধা বিঘা জমির মরিচ ক্ষতি হয়েছে তবে মরিচের বাজার এ বছর ভালো প্রতিমণ মরিচ ৪৫’শ থেকে ৫ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে সে হিসেবে লাভই হবে।

জেলা কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক মো. সামছুল হক জানান, এ বছর বৃষ্টিপাতের পরিমাণ তুলনামূলক বেশি হওয়ায় মরিচে অ্যানথ্রাক্সনোস (পচন) রোগের কিছুটা প্রভাব পড়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এবং মাঠপর্যায়ের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিকভাবে কৃষকের পাশে রয়েছে।

জেলা কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, পঞ্চগড় জেলায় চলতি বছরে ৯৫০০ হেক্টর জমিতে স্থানীয় জাতের বাঁশগাইয়া, বিন্দু জাতের মরিচের চাষ করা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে কৃষক মরিচ ঘরজাত করে ভালো দাম পাবে বলে কৃষি বিভাগ ও কৃষকরা আশা করছেন।

পিডি

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: