৬ শ্রাবণ ১৪২৫, রবিবার ২২ জুলাই ২০১৮, ১:১৬ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

পাবনায় অতিরিক্ত মজুরির কারণে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে কৃষিযন্ত্র


২৮ জুন ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৭:১৮  পিএম

পাবনা করেসপন্ডেন্ট

নতুনসময়.কম


পাবনায় অতিরিক্ত মজুরির কারণে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে কৃষিযন্ত্র

পাবনায় এ বছর ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে শ্রমিক সংকট ও অতিরিক্ত মজুরির কারণে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আধুনিক কৃষিযন্ত্র ‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’। এটি একটি ফসল কাটার যন্ত্র। এ যন্ত্রটি দিয়ে ধান ও গম কাটা,মাড়াই এবং ঝাড়াই একই সাথে করা হয়। উন্নত দেশগুলোতে কৃষক এ যন্ত্র ব্যবহার করে ক্ষেতের ফসল কেটে থাকে। তবে আমাদের দেশে এর প্রচলন তেমন একটা ছিলনা।

কৃষকেরা সনাতন পদ্ধতিতেই ফসল কাটতো। তবে দেশে ধান কাটার মৌসুম এলেই দেখা দেয় তীব্র শ্রমিক সংকট। শুধু শ্রমিক সংকট নয় শ্রমিকের মজুরীও গুণতে হয় অনেক বেশি। ফলে নতুন ফসল ঘরে তুলতে কৃষকের ব্যয় বেড়ে যায় অনেক বেশি। তবে ‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’ যন্ত্র দিয়ে কম খরচে দ্রুত সময়ে ধান কাটা,মাড়াই এবং ঝাড়াই করা যায়।

এতে করে যেমন কৃষকের ফসল কাটার ব্যয় নেমে আসে অর্ধেকে তেমনি প্রতিকূল আবহাওয়া থেকে ক্ষেতের ফসল রক্ষা পায়। মেশিনটি ব্যবহার করে ঘন্টায় ১ বিঘা জমির ধান একি সাথে কাটা,মাড়াই ও ঝাড়াই করা যায়। ফসলের ক্ষতির পরিমান শতকরা ২ ভাগ যা প্রচলিত পদ্ধতির চেয়ে অনেক কম। যন্ত্রটি দিয়ে সামান্য কাঁদাযুক্ত জমিতেও ধান কাটা যায়। এটি চালাতে একজন চালক ও একজন শ্রমিকের প্রয়োজন হয়। যন্ত্রটি চালানো খুব সহজ। পাওয়ার টিলার চালান এমন চালকেরা যন্ত্রটি সহজেই চালাতে পারেন। আর এ কারণেই দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আধুনিক কৃষি যন্ত্র‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’।

উপজেলা সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানায়, প্রচলিত পদ্ধতিতে ১ বিঘা জমির ধান কাটতে কৃষকের খরচ হয় ৪ হাজার টাকা। আর মিনি ‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’ মেশিন ব্যবহার করে ফসল কাটতে ১ বিঘা জমিতে কৃষকের খরচ হয় ২ হাজার টাকা। এতে করে ফসল উৎপাদনে কৃষকের খরচ নেমে আসে অর্ধেকে। এ মেশিনের সাহায্যে ধান কেটে খড় সারিবদ্ধভাবে আলাদা করে ঝাড়াই-মাড়াই হয়ে পরিস্কার ধান বস্তায় জমা হয়।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ নুরুল ইসলাম বলেন, আধুনিক এ যন্ত্রটি ব্যবহার করে ফসল উৎপাদন ব্যয় কমিয়ে ও প্রতিকূল আবহাওয়ার কবল থেকে কৃষক ফসল রক্ষা করে সহজেই লাভবান হতে পারেন। যন্ত্রটির বাজার মূল্য ৭ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। তবে কৃষক চাইলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে শতকরা ৫০ ভাগ ভর্তুকি মূল্যে যন্ত্রটি পেতে পারেন।
পাবনায় অতিরিক্ত মজুরির কারণে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে কৃষিযন্ত্র ‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’
নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা : পাবনায় এ বছর ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে শ্রমিক সংকট ও অতিরিক্ত মজুরির কারণে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আধুনিক কৃষিযন্ত্র ‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’। এটি একটি ফসল কাটার যন্ত্র। এ যন্ত্রটি দিয়ে ধান ও গম কাটা,মাড়াই এবং ঝাড়াই একই সাথে করা হয়। উন্নত দেশগুলোতে কৃষক এ যন্ত্র ব্যবহার করে ক্ষেতের ফসল কেটে থাকে। তবে আমাদের দেশে এর প্রচলন তেমন একটা ছিলনা। কৃষকেরা সনাতন পদ্ধতিতেই ফসল কাটতো। তবে দেশে ধান কাটার মৌসুম এলেই দেখা দেয় তীব্র শ্রমিক সংকট। শুধু শ্রমিক সংকট নয় শ্রমিকের মজুরীও গুণতে হয় অনেক বেশি। ফলে নতুন ফসল ঘরে তুলতে কৃষকের ব্যয় বেড়ে যায় অনেক বেশি। তবে ‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’ যন্ত্র দিয়ে কম খরচে দ্রুত সময়ে ধান কাটা,মাড়াই এবং ঝাড়াই করা যায়।

এতে করে যেমন কৃষকের ফসল কাটার ব্যয় নেমে আসে অর্ধেকে তেমনি প্রতিকূল আবহাওয়া থেকে ক্ষেতের ফসল রক্ষা পায়। মেশিনটি ব্যবহার করে ঘন্টায় ১ বিঘা জমির ধান একি সাথে কাটা,মাড়াই ও ঝাড়াই করা যায়। ফসলের ক্ষতির পরিমান শতকরা ২ ভাগ যা প্রচলিত পদ্ধতির চেয়ে অনেক কম। যন্ত্রটি দিয়ে সামান্য কাঁদাযুক্ত জমিতেও ধান কাটা যায়। এটি চালাতে একজন চালক ও একজন শ্রমিকের প্রয়োজন হয়। যন্ত্রটি চালানো খুব সহজ। পাওয়ার টিলার চালান এমন চালকেরা যন্ত্রটি সহজেই চালাতে পারেন। আর এ কারণেই দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আধুনিক কৃষি যন্ত্র‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’।

উপজেলা সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানায়, প্রচলিত পদ্ধতিতে ১ বিঘা জমির ধান কাটতে কৃষকের খরচ হয় ৪ হাজার টাকা। আর মিনি ‘কম্বাইন হার্ভেস্টার’ মেশিন ব্যবহার করে ফসল কাটতে ১ বিঘা জমিতে কৃষকের খরচ হয় ২ হাজার টাকা। এতে করে ফসল উৎপাদনে কৃষকের খরচ নেমে আসে অর্ধেকে। এ মেশিনের সাহায্যে ধান কেটে খড় সারিবদ্ধভাবে আলাদা করে ঝাড়াই-মাড়াই হয়ে পরিস্কার ধান বস্তায় জমা হয়।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ নুরুল ইসলাম বলেন, আধুনিক এ যন্ত্রটি ব্যবহার করে ফসল উৎপাদন ব্যয় কমিয়ে ও প্রতিকূল আবহাওয়ার কবল থেকে কৃষক ফসল রক্ষা করে সহজেই লাভবান হতে পারেন। যন্ত্রটির বাজার মূল্য ৭ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। তবে কৃষক চাইলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে শতকরা ৫০ ভাগ ভর্তুকি মূল্যে যন্ত্রটি পেতে পারেন।

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: