১ ভাদ্র ১৪২৪, বুধবার ১৬ আগস্ট ২০১৭, ১১:১৮ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

বন্যায় দিনাজপুরে ২৩ জনের মৃত্যু


১৬ আগস্ট ২০১৭ বুধবার, ১১:১২  পিএম

নতুনসময়.কম


বন্যায় দিনাজপুরে ২৩ জনের মৃত্যু

দিনাজপুরে বন্যায় গতকাল মঙ্গলবার পানিতে ডুবে আরও দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় বন্যায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ২৩ জনে।

এদিকে বুধবার জেলায় বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। শহরের প্লাবিত এলাকাগুলো থেকে কোথাও ১ ফুট পরিমাণ, কোথাওবা তার চেয়ে বেশি কমেছে।

বন্যার পানিতে ডুবে যে দুজন মারা যান তারা হলেন বিরল উপজেলার রানিপুকুর ইউনিয়নের পশ্চিম পলাশ বাড়ি এলাকার আব্দুস সাত্তার (৪৮) ও একই উপজেলার পলাশ বাড়ি ইউনিয়নের ফুতিগাঁও গ্রামের মাহফুজুর রহমান (২৫)।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বন্যায় গত শনিবার ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৩ জন, বীরগঞ্জে ১ জন পানিতে ডুবে ও কাহারোলে সাপে কেটে ১ জন মারা গেছে। এছাড়া বিরলে একই পরিবার থেকে ৪ জন পানিতে ডুবে ও দেয়াল চাপা পড়ে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে পানিতে ডুবে সদর উপজেলায় ২ জন এবং বিরল ও বীরগঞ্জে ১ জন করে আর নবাবগঞ্জে ১ জন দেয়াল চাপা পড়ে মারা গেছে। ১৪ তারিখ ৬ জন পানিতে ডুবে মারা গেছে। এর মধ্যে চিরিরবন্দরে ৪ জন, বীরগঞ্জ ও নবাবগঞ্জে ১ জন করে।

বুধবার দিনাজপুর শহরের পূর্ব এলাকা বাস টার্মিনাল, মির্জাপুর, ফকির পাড়া, বড়বন্দর নতুন পাড়া, বালুবাড়ি, ঈদগাহ বস্তি ও উপশহর এলাকায় গতকাল মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত কোথাও কোমর সমান কোথাওবা গলা পরিমাণ পানি ছিল, সেই সঙ্গে শহরের পশ্চিম এলাকা মাহুত পাড়া, হঠাৎ পাড়া, সাদুর ঘাট ও পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা এলাকার পানি আড়াই থেকে তিন ফিট পর্যন্ত নেমে গেছে। জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে দিনাজপুর সদর, বিরল, কাহারুল, বীরগঞ্জ, খানসামা ও চিরিরবন্দর বেশি আক্রান্ত হয়েছে।

জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম জানান, বন্যার্তদের জন্য ৩২০টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। সেগুলোতে প্রায় ১ লাখ ৪০ হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। বাকিরা বাইরে।

দিনাজপুর উপশহরের সাদিকা তাসনিম বলেন, গতকাল রাত পর্যন্ত আমাদের বাড়িতে কোমর সমান পানি ছিল। নেমে হাঁটুর কাছে চলে এসেছে।

মাহুত পাড়া এলাকার রফিক প্লাবন জানান, গতকাল থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত প্রায় ৪ ফুট পরিমাণ পানি নেমে গেছে।

দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী মো. সিদ্দিকুরজ্জামান জানান, আজ সকাল ৯ টা পর্যন্ত দিনাজপুরের পুনর্ভবা নদীর পানি বিপৎসীমার ১৬ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সেই সঙ্গে জেলার আত্রাই নদীর পানি বিপৎসীমার ১ দশমিক ৮২ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার রেকর্ড করা হয়েছে। জেলার পাশাপাশি অন্যান্য উপজেলাতেও পানি অনেকটা নিচে নেমে গেছে।

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: