৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার ২১ আগস্ট ২০১৭, ৪:২২ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

দেশে হালাল পণ্যের বাজার সম্ভাবনাময়


১৮ জুন ২০১৭ রবিবার, ০৮:১৯  পিএম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

নতুনসময়.কম


দেশে হালাল পণ্যের বাজার সম্ভাবনাময়

 

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, হালাল পণ্যের বাজার সৃষ্টিতে ‘বাংলাদেশ হালাল এক্সপো-২০১৭’ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এটি একটি সম্ভাবনাময় খাত। এই খাতের উন্নয়নে সবাইকে একত্রে কাজ করতে হবে।

রোববার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশ হালাল এক্সপো-২০১৭’-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমান বিশ্ববাজারে হালাল পণ্যসামগ্রী নিয়ে কাজ করার ব্যাপক সুযোগ রয়েছে। হালাল পণ্যের একটি বিশাল আন্তর্জাতিক বাজার রয়েছে। এ নিয়ে ভালোভাবে কাজ করলে অর্থনৈতিক সম্মৃদ্ধি অর্জনে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

আমির হোসেন বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এ মহতী উদ্যোগের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান উপকৃত হচ্ছে। বিশ্ববাজারে হালাল পণ্যের রপ্তানির মাধ্যমে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের একটি বড় সুযোগ সৃষ্টি হবে। হালাল পণ্যের বাজারজাতকরণের ক্ষেত্রে ইসলামের নির্দেশনাগুলোর দিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে।

গত ১৬ জুন তিনব্যাপী এ মেলা শুরু হয়েছিল। মেলায় ইফাদ মাল্টি প্রোডাক্টস লিমিটেড, এজি অ্যাগ্রো ফুডস্ লিমিটেড, হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ (ওয়াকফ) বাংলাদেশ, নেসলে বাংলাদেশ, প্রাণ ফুডস লিমিটেড, ডেন ফুডস লিমিটেড ও স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডসহ ১৬টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, সচিব আব্দুল জলিল ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ এনামুল হকসহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন বিভাগের পরিচালক, উপপরিচালক ও কর্মকর্তা কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

সরকারি উদ্যোগে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কোরআন ও সুন্নাহর আলোকে প্রণীত এবং ওআইসির হালাল স্যান্ডার্ড অনুসরণে ইসলামিক ফাউন্ডেশন হালাল সনদ নীতিমালা মোতাবেক ২০০৭ সাল থেকে আবেদনকৃত বিভিন্ন কোম্পানিকে যাচাই করে হালাল সনদ দিয়ে আসছে। এ পর্যন্ত প্রায় ৫০টি কোম্পানিকে হালাল সনদ দেওয়া হয়েছে।

 

 

 

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: