২ ভাদ্র ১৪২৫, শুক্রবার ১৭ আগস্ট ২০১৮, ৭:৪৬ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

জুলাইয়ে উদ্বোধন হবে ‘শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’


২৩ মে ২০১৮ বুধবার, ০১:১৩  পিএম

সিলেট করেসপন্ডেন্ট

নতুনসময়.কম


জুলাইয়ে উদ্বোধন হবে ‘শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’

সিলেটে নির্মাণাধীন ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’ এর যাত্রা শুরু হবে শিগগিরই। নগরীর দক্ষিণ সুরমার আলমপুরে নির্মাণাধীন এই পার্কটি আগামী জুলাই মাসে উদ্বোধন করার প্রস্তুতি চলছে।

দীর্ঘ ১২ বছর পর আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে এম সাইফুর রহমান নামে শুরু হওয়া এই পার্কটি। ইতোমধ্যে ‘এম সাইফুর রহমান শিশু পার্ক’ নাম পরিবর্তন করে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’ নামকরণ করা হয়েছে।

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজ জানান, এম সাইফুর রহমান তৎকালীন অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী থাকা অবস্থায় সিলেটের দক্ষিণ সুরমার হবিনন্দী মৌজার ৩ দশমিক ৭৭ একর ভূমির ওপর শিশু পার্ক নির্মাণের কাজ শুরু হয়। প্রথম দফায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে পার্কের জন্য ১৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। ২০০৬ সালের জুলাই থেকে ২০০৮ সালের জুন পর্যন্ত ওই বরাদ্দ থেকে ৫ কোটি ২৫ লাখ টাকা খরচ করে সিটি করপোরেশন। এ টাকায় জমি অধিগ্রহণ, মাটি ভরাট, অভ্যন্তরীণ লাইটিং, গাছের চারা লাগানো এবং সীমানা প্রাচীর ও টিকিট কাউন্টার নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হয়।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পুরো কাজ সম্পন্ন করতে না পারায় ২০০৮ সালের জুলাইয়ে বরাদ্দের ১২ কোটি ৪০ লাখ টাকা ফেরত যায়। টাকা ফেরত যাওয়ায় রাইড বসানো ও সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের সঙ্গে পার্কের সংযোগ সড়ক (এপ্রোচ রোড) নির্মাণসহ পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়নি। এরপর থেকেই পরিত্যক্ত অবস্থায় ১২ বছর ধরে অদৃশ্য কারণে চালু করা হয়নি পার্কটি।

পার্কের কাজ শেষ করতে সম্প্রতি ৭ কোটি টাকার একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। এই প্রকল্পের আওতায় চীনা একটি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করে পার্কে রাইড বসানোর কাজ চলছে। শিশুদের বিনোদনের জন্য ‘মনোরেল’ ও ‘ম্যাজিক প্যারাসুট’সহ মোট ৯টি রাইড বসানোর কাজ চলছে। ম্যাজিক প্যারাসুটে একসঙ্গে ১৮ জন ৭০ ফুট উঁচুতে ওঠানামা করতে পারবেন। মনোরেলে মাটি থেকে ১৫ ফুট উচ্চতায় এক হাজার ৩৬১ ফুট দূরত্ব অতিক্রম করা যাবে। এটি থাকবে পার্কের চারপাশ জুড়ে। এছাড়া পাইরেট শিপ, টুইস্টার, বাম্পার কার, ফ্রুট ফ্লাইং চেয়ার, ক্যারসেল, জাম্পিং ফ্রগ ও ভিজিটিং ট্রেন রয়েছে। ভিজিটিং ট্রেন দিয়ে একসঙ্গে ২৬ জনকে নিয়ে চার শ’ ২০ ফুট ঘুরা যাবে। ৯টি রাইড ছাড়া বাকিগুলোতে বিনা খরচে চড়া যাবে।

প্রকল্পের কাজের প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে পার্কের নাম নির্ধারণ করা হয়েছে।

সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল মাল আবদুল মুহিতের একটি ডিও লেটারের সূত্র ধরে পার্কটির নামকরণ হয় ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’। এর আগে এ পার্কের নাম ছিল ‘এম সাইফুর রহমান শিশু পার্ক’।

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল হক জানান, এক চিঠির মাধ্যমে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় পার্কের নাম চূড়ান্তকরণের বিষয়টি অবহিত করে বলে জানা গেছে।

এদিকে, সিলেটে জাফলং, বিছানাকান্দি, রাতারগুলসহ অসংখ্য পর্যটনকেন্দ্র থাকলেও শহর বা শহরতলীতে যে সকল বিনোদন কেন্দ্র রয়েছে সেগুলো চাহিদা পূরণ করতে পারছে না। এ অবস্থায় জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশু পার্কটির যাত্রা শুরু হলে সিলেটের বিনোদনপ্রেমী মানুষকে আকৃষ্ট করবে বলেই সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

পিডি

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: