৮ কার্তিক ১৪২৪, সোমবার ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৫:৪৭ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

গৃহবধুকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন, মৃত ভেবে পালালো স্বামী-শাশুড়ি


৩০ আগস্ট ২০১৬ মঙ্গলবার, ০২:২০  পিএম

নতুনসময়.কম


গৃহবধুকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন, মৃত ভেবে পালালো স্বামী-শাশুড়ি

গাজীপুরে এনি আক্তার (৩৩) নামে এক গৃহবধূকে নির্যাতন চালিয়ে রক্তাক্ত করেছে এক পাষণ্ড স্বামী ও শাশুড়ি। অমানুষিক নির্যাতনের একপর্যায়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন হতভাগা এনি আক্তার। পরে মারা গেছেন এ ভয়ে নির্যাতনকারীরা বাড়ি-ঘরে তালা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় রক্তের উপর পানি ঢেলে আলামত মুছে দেওয়ার চেষ্টা করেন তারা।

গাজীপুর মহানগরীর স্থানীয় বোর্ড বাজার সংলগ্ন কাথুরা পূর্ব পাড়ায় সোমবার এ ঘটনা ঘটে। প্রতিবেশীদের মাধ্যমে খবর পেয়ে এনির বাবা-মা উঠানে রশিতে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় এনিকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এনির বাবা-মা ও স্থানীয়রা জানান, চার বছর আগে এনির সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় কাথুরার হাবিব উল্লাহ মাস্টারের ছেলে খায়রুল ইসলামের। এনির পরিবার অসচ্ছল থাকায় এ বিবাহে খায়রুলের পরিবারের সম্মতি ছিল না। বিবাহের পর থেকেই এনিকে তালাক দেওয়ার জন্য খায়রুলকে চাপ দিচ্ছিলেন তার মা রেহেনা বেগম ও বড় ভাই মঞ্জু। পরিবারের চাপে খায়রুল এনিকে তালাক দিলেও পরে আবার সাত লাখ টাকার দেনমোহরে তাকে পুনরায় বিবাহ করেন। এ ঘটনায় খায়রুলকে পৈত্রিক সম্পত্তি থেকেও বঞ্চিত করা হয়। এরই মধ্যে গত দেড় বছর আগে তাদের একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। এতে এনির ওপর নির্যাতনের মাত্রা আরো বেড়ে যায়। এনিকে নিয়ে পৃথক সংসার করার কথা বলে খায়রুল কালিয়াকৈর এলাকায় বাসা ভাড়া নেন। পরে ওই বাসায় এনিকে রেখে খায়রুল গা ঢাকা দেয়।

এনি ও তার স্বজনরা খায়রুলকে গুম করেছে থানায় এমন অভিযোগ দেয় খায়রুলের পরিবার। পরে এনির পরিবার পুলিশের সহযোগিতায় খায়রুলকে সাভার পল্লী বিদ্যুৎ এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে আটক করে। ওই বাড়িতে খায়রুলের মা রেহেনা বেগমও অবস্থান করছিল। পরে স্থানীয়ভাবে আপোষ-মীমাংসার মাধ্যমে খায়রুলকে জেল থেকে জামিনে বের করা হয়।

এ ব্যাপারে গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে সালিশে দেনমোহর ও খোরপোশ বাবদ ৮ লাখ ৫ হাজার টাকায় তাদের বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হয়। খায়রুরের পরিবার নগদ টাকার পরিবর্তে দুই কাঠা জমি এনিকে রেজিস্ট্রি করে দিতে সম্মত হয়। সোমবার জমি বুঝে দেওয়ার কথা বলে এনি আক্তারকে খায়রুলদের বাড়িতে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে নির্যাতন চালানো হয়।

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: