১ ভাদ্র ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ১৬ আগস্ট ২০১৮, ৮:০৯ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

ক্রেতা-বিক্রেতাদের দর কষাকষিতে মুখরিত কোরবানির হাট


১০ আগস্ট ২০১৮ শুক্রবার, ০৪:৫২  পিএম

নতুনসময়.কম


ক্রেতা-বিক্রেতাদের দর কষাকষিতে মুখরিত কোরবানির হাট

দুয়ারে কড়া নাড়ছে ঈদুল আজহা। দেখতে দেখতে সময়ের ঘড়ির কাটা চলে আসছে কোরবানির পশুর হাট বাজারের দিকে। এখন শুধু ক্রেতা-বিক্রেতাদের দর কষাকষিতে মুখরিত হয়ে উঠার পালা।

তবে ছুটির দিনে প্রথমবারের মত রাজশাহীর পশুর হাটে মানুষের ভিড় মোটেই কম নয়।

শুক্রবার (১০ আগষ্ট) সকাল থেকেই ক্রেতাদের পদচারণায় গমগম করছে রাজশাহীর সিটি পশুর হাট।

আগামী ২২ আগস্ট ঈদ ধরে সিটি হাটে পশুর আমদানি বেড়েছে। শুক্রবার (১০ আগস্ট) সকাল থেকে কোরবানির জন্য গরু-ছাগল কিনতে সাধারণ ক্রেতাদের পাশাপাশি ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে পাইকাররা ভিড় জমাচ্ছেন। এদিন অন্যান্য পশু সরবরাহও বেড়েছে। হাটে ভারতীয় গরুর চেয়ে দেশি গরু কম হলেও চাহিদা ও দাম দুটোই বেশ চড়া।

রাজশাহী সিটি হাট ছাড়াও নাওহাটা হাট, বানেশ্বর হাট, কেশরহাট, কাটাখালি হাট, গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট, মহিষাল বাড়ী হাট ও মাচমইল হাটে কোরবানির পশুর দামের তারতম্য একই।

বিক্রেতারা বলছেন, গত তিন বছর থেকে রাজশাহীর সিটি হাটসহ বিভিন্ন পশুর হাটে ভারতীয় গরু কম আসছে। ক্রেতাদের কাছে দেশি গরুর চাহিদা বেড়েছে। শুধু তাই না, কয়েক বছর ধরে খামারিরা লাভবান হচ্ছেন। অনেকেই বাড়তি লাভের আশায় বাড়িতে ছোট আকারের খামার তৈরি করে ফেলেছেন। কিন্ত হঠাৎ করে গো খাদ্যের দাম বাড়ায় খামারগুলোতে গরু পালনের সংখ্যা কিছুটা কমেছে। তাই দেশি গরুর দাম এবার অন্য বছরের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে।

রাজশাহী সিটি হাটে গিয়ে দেখা গেছে ছোট সাইজের গরুর (৬০ কেজি মাংস) দাম ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। মাঝারি সাইজের গরুর (৮০ কেজি মাংস) দাম ৬০ থেকে ৭০ হাজার ও বড় সাইজের গরুর (১০০-১৪০ কেজি মাংস) দাম ৯০ থেকে ১ লাখের ওপরে হাঁকানো হচ্ছে।

অপরদিকে আনুমানিক ১০ থেকে ১২ কেজি ওজনের কোরবানির ছাগলের দাম ৯ থেকে ১০ হাজার টাকা, ১৫ থেকে ১৮ কেজি ওজনের ছাগলের দাম ১৪ থেকে ১৫ হাজার টাকা ও ২০ থেকে ২৫ কেজি মাংসহবে এমন ছাগলের দাম হাঁকা হচ্ছে ১৮ থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

আরআইএস

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: