৭ আষাঢ় ১৪২৫, শুক্রবার ২২ জুন ২০১৮, ৫:৪৫ পূর্বাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

ঈদ যাত্রায় ট্রেনে স্বস্তি


১২ জুন ২০১৮ মঙ্গলবার, ০৪:৩৮  পিএম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

নতুনসময়.কম


ঈদ যাত্রায় ট্রেনে স্বস্তি

পরিবার স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন ঘরমুখো মানুষ। ঈদযাত্রার তৃতীয় দিনেও কমলাপুর রেলস্টেশনে মানুষের ঢল নামতে শুরু করেছে। সড়কেও ছিল চোখে পড়ার মতো ভিড়। গত দুই দিনের তুলনায় মঙ্গলবার যাত্রীদের সংখ্যা ছিল তুলনামূলক বেশি। সকাল থেকেই অগ্নিবীনা ট্রেন ছাড়া অধিকাংশ ট্রেনে সময়মতো চলে যাওয়ায় অনেকটা স্বস্তি নিয়েই বাড়ি ফিরছেন অনেক যাত্রী।

সকল শ্রেণি মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে, অগ্রিম বাংলাদেশ রেলওয়ে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। গত ১ জুন দেয়া হয়েছিল ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি, আর সেদিন দেয়া হয়েছিল ১০ জুনের টিকিট। আর ৩ জুন দেয়া হয়েছিল আজকের অগ্রিম টিকিট।

ত্ররই মধ্যে গত ৩ জুন লাইনে দাঁড়িয়ে যেসব যাত্রী অগ্রিম টিকিট সংগ্রহ করেছিলেন তারাই আজ সকাল থেকে কমলাপুর স্টেশন থেকে ট্রেনে ঢাকা ছেড়েছে। ঈদযাত্রার তৃতীয় দিন সকাল থেকেই কমলাপুর স্টেশনে ভিড় করতে থাকেন নানা বয়সী মানুষ। স্টেশনের প্লাটফর্মে সকাল থেকেই কাঙ্ক্ষিত ট্রেনের জন্য অপেক্ষায় ছিলেন অনেক যাত্রীরা।

টিকিট সংগ্রহের জন্য অনেকটা ভোগান্তি পোহাতে হলেও ঈদযাত্রার সময় সবার চোখে মুখে ছিল মিষ্টি হাসি।

ত্রদিকে সরেজমিনে কমলাপুর স্টেশনে গিয়ে দেখা গেছে, সকাল থেকে ঘরমুখো হাজারো যাত্রীকে নিয়ে কমলাপুর রেলস্টেশন ছেড়ে যাচ্ছে ট্রেনগুলো। অধিকাংশ ট্রেনে কিছুটা খালি জায়গা দেখা গেলে সুন্দরবন, রংপুর এক্সপ্রেস, তিস্তা ও একতা এক্সপ্রেসে ছিল যাত্রীতে কোন ঠাসা। অনেকে ট্রেনের ছাদে ওঠার চেষ্টা করলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরায় উঠতে পারেননি।

সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে ৩ নম্বর প্লাটফর্ম থেকে ছেড়ে যায় উত্তরবঙ্গগামী রংপুর এক্সপ্রেস। ট্রেনে প্লাটফর্মে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গেই যাত্রীরা হুড়োহুড়ি করে ট্রেনে উঠার চেষ্টা করেন।

এই ট্রেনে যাওয়ার জন্য সকাল থেকে স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন মিজানুর রহমান। ঢাকাটাইমসকে তিনি জানান, ‘প্রায় ১৮ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়ানোর পর টিকিট পেয়েছিলাম। আবার ট্রেনে হুড়োহুড়ি করে উঠতে হবে, মানুষের ভিড়ে টিকিট অনুযায়ী আসনের কাছে পৌঁছানোই কঠিন।’

আলআমিন বলেন, ‘ঈদ আসলে টিকিট সংগ্রহ থেকে বাড়ি ফেরা আবার থেকে ফিরে আসা পর্যন্ত পদে পদে আমাদের পড়তে হয় নানা ধরনের বিড়ম্বনা-ভোগান্তি পোহাতে হয়। ত্রটা ত্রখন আমাদের জন্য নতুন কিছু নয়,তবুও মানুষ সেসব উপেক্ষা করে নিজ গ্রামে ছুটে যাক।

ত্রদিকে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মঙ্গলবার ৬৬টি ট্রেন কমলাপুর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেড়ে যাবে।

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আগামী তিন দিন ঘরেফেরা মানুষের ভিড় হবে সবচেয়ে বেশি।

তৃতীয় দিনের ঈদযাত্রা নিয়ে জানতে চাইলে কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার সীতাংশু চক্রবর্তী বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে প্রতিদিন কমলাপুর থেকে প্রায় ৫০/৬০ হাজার মানুষ বিভিন্ন প্রান্তে যাবেন। যাত্রী চাপ সামলাতে প্রায় প্রতিটি ট্রেনেই অতিরিক্ত বগি লাগানো হয়েছে। এছাড়া যাত্রীদের সুবিধার্থে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে কেউ যেন ট্রেনের ছাদে ভ্রমণ না করেন, সেজন্য যাত্রীদের অনুরোধ করেন।

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: