৮ বৈশাখ ১৪২৫, শনিবার ২১ এপ্রিল ২০১৮, ৫:৪৪ অপরাহ্ণ
bangla fonts
facebook twitter google plus rss
Natun Somoy logo

ইতিহাসের বড় লোকসানের মুখে ফেসবুক


২৪ মার্চ ২০১৮ শনিবার, ০৯:০৮  পিএম

নতুনসময়.কম


ইতিহাসের বড় লোকসানের মুখে ফেসবুক

গ্রাহকের তথ্য চুরির অভিযোগ ওঠার পর থেকে কমতে শুরু করেছে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের শেয়ারের দাম। শনিবার পর্যন্ত কোম্পানিটির মোট শেয়ারের দাম ৫ হাজার ৮০০ কোটি ডলার কমেছে। ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ এই তথ্য চুরির ঘটনায় ক্ষমা চাইলেও বিনিয়োগকারীরা শেয়ার বিক্রি বন্ধ করেনি। এটি ফেসবুকের ইতিহাসে বড় লোকসান আখ্যা দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

সম্প্রতি ফেসবুকের প্রায় ৫ কোটি গ্রাহকের তথ্য চুরির অভিযোগ ওঠে। ফেসবুকের ওই তথ্য নিয়ে ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে প্রচারণা চালায় যুক্তরাজ্যের প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ অ্যানালেটিকা। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের সংসদীয় কমিটি ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা জাকারবার্গকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে। এছাড়া ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মধ্যেও ঘটনাটি ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। ইতোমধ্যে অনেকেই ফেসবুককে বর্জন করার আহ্বান জানিয়ে হ্যাশট্যাগ ডিলিট ফেসবুক প্রচারণাও শুরু করেছে। এরই মধ্যে কোম্পানিটির শেয়ারেরও ব্যাপক দরপতন শুরু হয়েছে।

ফেসবুকের বিরুদ্ধে এত নেতিবাচক খবর বিজ্ঞাপনাদাতাদেরও বিরক্ত করেছে। তারাও ফেসবুককে এড়িয়ে চলার চেষ্টা শুরু করেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কোম্পানিটির শেয়ারের দাম ১৭৬.৮০ ডলার থেকে কমে শুক্রবার রাত পর্যন্ত ১৫৯.৩০ ডলারে নেমে এসেছে।

২০১২ সালে ফেসবুক প্রতি শেয়ার ৩৮ ডলার দরে জনসাধারণকে শেয়ার কেনার আহ্বান জানিয়েছিল। সে সময় কোম্পানিটির বাজার মূল্য ছিল প্রায় ১০ হাজার ৪শ কোটি মার্কিন ডলার। এরপর ক্রমশ ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি ফেসবুককে ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের বাজারে প্রভাবশালী জায়গা দখল করে নেয় ফেসবুক। এই বছরের ফেব্রুয়ারিতে ফেসবুকের শেয়ারের দাম বেড়ে ১৯০ মার্কিন ডলার হয়েছিল।

পিভোটাল রিসার্চের জ্যেষ্ঠ বিশ্লেষক ব্রিয়ান ওয়েসার বলেন, তিনি ফেসবুকের শেয়ারের ব্যাপারে সবচেয়ে বেশি নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি দেখা গেছে। ‘এই তথ্য চুরির ঘটনার আগেই আমি অনুমান করেছিলাম ২০১৮ সালে ফেসবুকের শেয়ারের দাম হবে ১৫২ মার্কিন ডলার।’

ব্রিয়ান ওয়েসার আরও বলেন, শেয়ারের দাম কমে যাওয়ায় দেখা যাচ্ছে বিনিয়োগকারীরা ফেসবুকের জন্য অর্থ বরাদ্দের ব্যাপারে বেশ সতর্ক আর ব্যবহারকারীরা প্লাটফর্মটি ছেড়ে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘কিন্তু বিজ্ঞাপনদাতারা ফেসবুক ছেড়ে যাওয়াটা কিছুটা ঝুঁকিপূর্ণ। তারা অন্য আর কোথায় যাবে?’

হারগ্রিভস ল্যানসডাউনের জ্যেষ্ঠ বিশ্লেষক লাইথ খালাফ বলেন, এই সপ্তাহটি ছিল ফেসবুকের ইতিহাসে লোকসানের পর্ব। তিনি বলেন, ফেসবুকের সফলতার বিভিন্ন কারণের একটি হলো যতবেশি মানুষ এটা ব্যবহার করবে তার ভোক্তা তত বাড়বে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে উল্টো রীতিটি একই রকম। যদি মানুষ উল্লেখযোগ্য সংখ্যক হারে ফেসবুক ত্যাগ করে তাহলে প্রতিষ্ঠানটির লাভ কমে যাবে। তথ্য চুরি কেলেঙ্কারির পর থেকে তাই ঘটতে দেখা যাচ্ছে।

এসএ

নতুনসময়.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: